Wednesday, May 25, 2022
Homeকলকাতা'আমরা খাব না চা?' এবার নিজের চায়ের দোকান খুলে সকলকে আমন্ত্রণ জানালেন...

‘আমরা খাব না চা?’ এবার নিজের চায়ের দোকান খুলে সকলকে আমন্ত্রণ জানালেন ‘চা কাকু’


#কলকাতা: “চা খাব না আমরা? আমরা খাব না চা?” এই দুটি বাক্য বলেই রাতারাতি ভাইরাল হয়েছিলেন ‘চা কাকু’ মৃদুল দেব (Cha Kaku Mridul Dev)। তাঁর নামের অর্থের মতোই স্নেহ মাখা গলায় প্রশ্ন তুলেছিলেন দক্ষিণ কলকাতা নিবাসী এই বিখ্যাত ‘চা কাকু’। আর তার পরেই মুহূর্তে গোটা বাংলার কাছে পরিচিত হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। আর এবার সেই ‘চা কাকু’ নিজেই খুললেন একটি চায়ের দোকান। নিজের চায়ের দোকানে আমন্ত্রণও জানালেন সকলকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে নিজেই চায়ের দোকান সম্পর্কে জানান দিয়েছেন মৃদুল দেব।

২০২০-তে করোনা মহামারী শুরু হওয়ার পরে তখন সবে রাজ্য জুড়ে শুরু হয়েছে লকডাউন। রাস্তাঘাট সবই ফাঁকা। সেই সময়ে দক্ষিণ কলকাতার এক চায়ের দোকানে চা খাচ্ছিলেন কয়েকজন। কিন্তু লকডাউনের বাজারে চা কেন খাচ্ছেন এই প্রশ্ন তোলেন প্রাক্তন অভিনেত্রী ও দক্ষিণ কলকাতার এক ক্যাফের মালিক স্বরলিপি চট্টোপাধ্যায়। এবং পুরো ঘটনার ভিডিও রেকর্ড করে তা ফেসবুকে শেয়ার করেন স্বরলিপি। তিনি প্রশ্ন তুলেছিলেন, কেন এই মহামারীর মধ্যে সকলে একজড়ো হয়ে চা খাচ্ছেন। সেই প্রশ্নের জবাবেই মৃদুল দেব বলেছিলেন, “চা খাব না আমরা? আমরা খাব না চা?” এমন মিষ্ট‌ি ভঙ্গিতে ‘চা কাকু’র এই প্রশ্ন শুনে মুগ্ধ হয়ে যায় নে‌টিজেন। রাতারাতি ‘চা কাকু’ নামেই ভাইরাল হন তিনি।

তবে ভাইরাল হয়ে কটূক্তিও শুনতে হয়েছিল তাঁকে। তৈরি হয়েছিল নানা রকমের কুরুচিকর মিমও। তখনও জানা যায়নি তাঁর আসল পরিচয়। তবে কিছুদিনের মধ্যেই আরও একটি ভিডিওর মাধ্যমে জানা যায় ‘চা কাকু’র আসল নাম মৃদুল দেব। রানিকুঠি অঞ্চলের বাসিন্দা মৃদুল দেব পেশায় রাজমিস্ত্রী। দারিদ্রের মধ্যেই তাঁর সংসার চলে। কিন্তু অবশেষে এক বছর পরে সেই চা-কেই ভর করে নতুন পথ চলা শুরু করে ফেললেন তিনি।

রানিকুঠির শ্রীকলোনি বাজারের কাছে নিজের বাড়ির সামনেই একটি চায়ের দোকান খুললেন মৃদুল দেব। ফেসবুকে লিখলেন, “আমার নতুন দোকান। ছোট করে শুরু করলাম। যারা যারা আমার দোকানের চা খেতে চাও চলে এসো।” তাঁর এই চায়ের দোকানের পোস্টটিও মুহূর্তে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। মৃদুল দেবের ছেলে তাঁর একটি ভিডিওয় জানান, “বাবা যেহেতু চা নিয়েই বিখ্যাত হয়েছিলেন, তাই ভাবলাম চায়ের দোকানই খুলি। আর অন্য কোনও কিছুর জন্য যথেষ্ট পুঁজিও নেই। তাই এই চায়ের দোকান।”

Published by:Swaralipi Dasgupta

First published:



Source link

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

Recent Comments